পঞ্জিকা দেখে বিয়ের দিনক্ষণ নির্ধারণে ইসলাম কী বলে ?

6

পঞ্জিকা দেখে বিয়ে কিংবা যে কোনো কাজের দিন-তারিখ ঠিক করা একটি ভুল প্রথা। হিন্দুধর্মে বিশ্বাসীরা সাধারণত এমনটি করে থাকে। পঞ্জিকা দেখে বিয়ে কিংবা যে কোনো কাজের দিনক্ষণ ঠিক করা শিরকি ও কুসংস্কারের ওপর প্রতিষ্ঠিত একটি কাজ।

যা কখনো মুসলিমদের জন্য হতে পারে না। কেননা দিন ও রাতে কিংবা সময়ের ক্ষেত্রে ইসলামে শুভ-অশুভ বলে কোনো কিছু নেই।

কোনো মাস, দিন বা রাতকে অশুভ মনে করা কিংবা কোনো সময়কে বিশেষ কাজের জন্য অশুভ বা অলুক্ষণে মনে করা জাহেলিয়াতের কুসংস্কার মাত্র। এর সঙ্গে ইসলাম ও মুসলিমদের কোনো সম্পর্ক নেই।

ইসলাম পূর্ব জাহেলিয়াতের যুগে রমজান পরবর্তী শাওয়াল মাসে বিয়ে-শাদি সম্পাদন করাকে অশুভ অলক্ষুণে মনে করা হতো। হজরত আয়েশা রাদিয়াল্লাহু আনহা এ ধারণাকে খণ্ডন করে বলেন-

‘রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম শাওয়াল মাসেই আমাকে বিবাহ করেছেন এবং শাওয়াল মাসেই আমার রুখসতি হয়েছে। অথচ তাঁর অনুগ্রহ লাভে আমার চেয়ে অধিক সৌভাগ্যবতী স্ত্রী আর কে আছে?’ (মুসলিম)

সুতরাং মুসলিম উম্মাহর জন্য বিয়েসহ যে কোনো কাজের জন্য দিনক্ষণ বাছাই করার কোনো প্রয়োজনীয়তা নেই। আর এর মধ্যে বিশেষ বরকতও নেই। আল্লাহর দিন-তারিখের মধ্যে কোনো অশুভ বা অলক্ষুণে দিন নেই।

আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে দুনিয়ার সব ধরনের কুসংস্কার থেকে মুক্ত থাকার মাধ্যমে সঠিক আক্বিদা বিশ্বাসে নিজেদের পরিচালনা করার তাওফিক দা করুন। আমিন।