সাবধান! কাগজে মোড়ানো খাবার খেলে হতে পারে ক্যান্সার..

32

কাগজে মোড়ানো খাবার খেলে হতে- খবরের কাগজে মোড়ানো খাবার শরীরের মারাত্মক ক্ষতি করছে বলে জানিয়েছে ভারতের খাদ্য নিরাপত্তা ও মান যাচাইয়ের সংস্থা ফ্যাসাই।

অথচ চপ, সিঙাড়া থেকে শুরু করে যে কোনও ধরণের রান্না করা খাবার কাগজে মুড়ে দেওয়াটা স্বাভাবিক অভ্যাসে পরিণত হয়েছে। কিন্তু বিজ্ঞানীরা বলছেন, এই অভ্যাসের জন্যই শেষ পর্যন্ত ক্যান্সারের মত মারাত্মক রোগও হতে পারে।

বলা হয়েছে, সাধারণত খবরের কাগজের ঠোঙা বা ছেঁড়া কাগজে খাবার মুড়ে দেওয়া হয়। কিন্তু সেই কাগজ ছাপা হয় নানা রকম রাষায়নিক দিয়ে তৈরি করা কালি দিয়ে।

সেই কালি সরাসরি পেটে গেলে শরীর খারাপ, এমন কি মৃত্যু পর্যন্ত সম্ভব।

খবরের কাগজে কালি কিছুটা মিশে যায়, কিছুটা আলগা থাকে। যখন কোনও রান্না করা খাবার কাগজে মুড়ে দেওয়া হয়, তখন সেই আলগা কালি লেগে যায় খাবারের গায়ে।

ফলে সরাসরি সেই মারাত্মক ক্ষতিকর কালি চলে যায় পেটে। দীর্ঘ দিন ধরে খবরের কাগজে মোড়া খাবার খেলে তাই শারীরিক ক্ষতি হওয়া নিশ্চিত।

চিকিৎসকদের মতে, খবরের কাগজে মুড়ে দেওয়া খাবার শরীরের পক্ষে খুবই ক্ষতিকর। এ নিয়ে ক্রেতা বিক্রেতাদের মধ্যে সচেতনতা তৈরি হওয়া খুবই দরকার।

যেভাবে ভরপেট ভাত খেলেও জমবে না মেদ!

বেশিরভাগ মানুষেরই ধারণা, ভাত বেশি খেলে ওজন বাড়ে। ধারণাটা পুরোপুরি মিথ্যে নয়। চালে থাকা স্টার্চের কারণেই বেশি ভাত খাওয়ার ফলে ওজন বাড়ার শঙ্কা বেশি।

কিন্তু খাঁটি বাঙালির তো ভাত ছাড়া চলে না। একটি কৌশল অবলম্বন করলে ইচ্ছেমতো ভাত খেতে পারেন আপনি। তাও আবার মোটা হওয়ার ঝুঁকি ছাড়াই।

তার জন্য ভাত রান্নার কৌশলে আনতে হবে পরিবর্তন। গরম ফুটন্ত পানিতে চাল দেওয়ার আগে একটু নারিকেল তেল যোগ করুন। মোটামুটি যে পরিমাণ চাল নেওয়া হচ্ছে তার তিন শতাংশ পরিমাণ তেল হলেই চলবে।

হাফ কাপ চালের ভাত রান্না করতে চাইলে এক চা-চামচ তেল যোগ করুন। ভাত হওয়ার পর তা রেফ্রিজারেটরে ঠাণ্ডা করুন ১২ ঘণ্টা। খাওয়ার সময় শুধু গরম করে নিন।

নারিকেল তেল মেশানোর কারণে চালের মধ্যে থাকা স্টার্চ ভেঙে গ্লুকোজ ও গ্লাইকোজেনে পরিণত হয়।

এই গ্লাইকোজেনের কারণেই মেদ জমে। রান্নার আগে নারিকেল তেল যোগ করার ফলে তেলের লিপিড এর মধ্যে ঢুকে পড়ে।

ফলে স্টার্চের গঠনতন্ত্রে পরিবর্তন ঘটে। এর কারণেই এভাবে রান্না করা ভাত খাওয়ায় মেদ জমার সম্ভাবনাও অনেক কমে যায়।