আমি বিশ্বাস করি সমস্ত সাম্রাজ্যের মালিক একমাত্র আল্লাহ : ইমরান খান

সমস্ত সাম্রাজ্য একমাত্র আল্লাহর- পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান বলেছেন, আমি বিশ্বাস করি যে, সমস্ত সাম্রাজ্য একমাত্র আল্লাহর। আমি কখনোই বলিনি যে,সাম্রাজ্যের আঙ্গুল হল সেনাবাহিনী।

বৃহস্পতিবার (১ অক্টোবর) সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি এসব কথা বলেন।

ইমরান খান বলেন, বিরোধীদের চাপে পরে কোনো সিদ্ধান্ত নিলে রাষ্ট্র ধ্বংস হয়ে যাবে। তারা পাকিস্তানকে ঋণে জর্জরিত করে মিথ্যা অজুহাতে বিদেশে পালিয়েছে। জাতীয় সম্পদ বৃদ্ধির রাষ্ট্রীয় চাহিদা পূরণ করতে তারা আমাদের জন্য কিছুই রাখেনি।

তিনি বলেন, বিরোধী দল এনআরও ( ন্যাশনাল রিকনসিলেশন অর্ডিনেন্স। এটি ২০০৭ সালে পারভেজ মোশাররফ কর্তৃক গৃহীত দুর্নীতি থেকে নিষ্কৃতির বিশেষ আইন) দেওয়ার জন্য আমাকে চাপ দিচ্ছে, তবে আমি এর পরিবর্তে স্বেচ্ছায় পদত্যাগকেই অগ্রাধিকার দিবো।

দুর্নীতিবাজদের হুশিয়ার করে দিয়ে ইমরান খান বলেন, পাকিস্তানের ১ লক্ষ ৭০ হাজার ভোটার আমাকে তাদের অভিভাবক হিসেবে নির্বাচন করেছে। সুতরাং, কেউ যদি আইন ভঙ্গ করার চেষ্টা করে তবে আমি একে একে সবাইকেই জেলখানায় কয়েদ করবো।

সূত্র: জিও নিউজ

সেনাবাহিনীকে দুর্বল করতে নওয়াজ শরিফকে সাহায্য করছে ভারত: ইমরান খান

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান অভিযোগ করেছেন, তার দেশের সামরিক বাহিনীতে দুর্বল করার ক্ষেত্রে বিরোধী নেতা নওয়াজ শরিফকে সাহায্য করছে প্রতিবেশী ভারত। ইমরান বলেন, নওয়াজ শরীফ খুবই বিপজ্জনক খেলায় মেতেছেন।

সামা টেলিভিশনের সাংবাদিক নাদিম মালিককে দেয়া সাক্ষাৎকারে গতকাল (বৃহস্পতিবার) ইমরান খান এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, তার সরকারের সঙ্গে সামরিক বাহিনীর সম্পর্ক পাকিস্তানের ইতিহাসের সবচেয়ে সেরা সম্পর্ক কারণ রাষ্ট্রের প্রতিটি অঙ্গ প্রতিষ্ঠান যার যার অঙ্গনে থেকে কাজ করছে।

ইমরান খান বলেন, মুত্তাহিদা কওমি মুভমেন্টের প্রধান আলতাফ হোসেন যে খেলা খেলেছিলেন নওয়াজ শরীফ সেই একই খেলা শুরু করেছেন। সাক্ষাৎকারে ইমরান খান বলেন, তিনি ১০০ ভাগ নিশ্চিত যে, নওয়াজ শরীফকে সাহায্য করছে ভারত।

পাক প্রধানমন্ত্রী বলেন- লিবিয়া, সিরিয়া, ইরাক, আফগানিস্তান, ইয়েমেন- মুসলিম বিশ্বের প্রতিটি দেশ জ্বলছে। এর মধ্যেও আমরা কেন নিরাপদ? যদি আমাদের সামরিক বাহিনী না থাকতো তাহলে আমাদের দেশকে তিন টুকরা করা হতো। ভারতের গবেষণা প্রতিষ্ঠানগুলো পাকিস্তানকে ভাঙতে চায়।”

ইমরান খান বলেন, “মুসলিম লীগ নেতা নওয়াজ শরীফ সেনাবাহিনীকে আক্রমণ করে মারাত্মক রকমের গোলমাল সৃষ্টি করেছেন।

তিনি পরবর্তী আলতাফ হোসেন হতে যাচ্ছেন এবং আমি নিশ্চিত যে, তার এই কর্মকাণ্ডের পেছনে ভারতের সমর্থন রয়েছে।”

ইমরান খান আরো বলেন, তিনি পাকিস্তানের ইতিহাসে প্রথম ব্যক্তি যিনি পাঁচটি আসন থেকে একসাথে নির্বাচিত হয়েছেন এবং তিনি নওয়াজ শরীফ কিংবা জুলফিকার আলী ভুট্টোর মতো সামরিক বাহিনীর তত্ত্বাবধানে রাজনীতিতে আসেন নি।