এবার বিশ্বশ্রেষ্ঠ প্রযুক্তিবিদের তালিকায় নাম লেখাতে যাচ্ছেন এরদোয়ানের জামাতা !

97

অত্যাধুনিক ড্রোনের জন্য- কারাবাখে আর্মেনিয়কে ধোলাই করার পর বিশ্বের অস্ত্রবাজারে বায়রাক্তার ড্রোনের কদর বেড়েছে। ইতিমধ্যে ইউক্রেন ৪৮ টি বায়রাক্তার TB2 ড্রোনের প্রাথমিক আর্ডার করেছে।

একটি বায়রাক্তার TB2 ড্রোনের দাম হচ্ছে ৫ মিলিয়ন ডলার। সেই মতে ৪৮ টির দাম হচ্ছে ২৪০ মিলিয়ন ডলার যা বাংলা টাকায় ২০৪০ কোটি টাকা হয়।

ফেসবুক প্রতিষ্টাতা জোকার বার্গ কিংবা গুগল প্রতিষ্ঠাতা সার্গেই ব্রেইন, ল্যারি পেইজ বিংবা ইলন মাস্কের মত আগামী বিশ্বের বড় বিলিয়নিয়ার ও শ্রেষ্ঠ প্রযুক্তিবিদ এর তালিখায় নাম লেখাতে যাচ্ছে এরদোয়ান জামাতা সেলচুক বায়রাক্তার।

নাগার্নো-কারাবাখে আর্মেনিয়ার সাথে চলমান যুদ্ধে বেশ ভাল অবস্থানে রয়েছ আজারবাইজান। এই প্রথমবারের মতো আজারবাইজান স্বীকার করলো যে তারা যুদ্ধে তুর্কি মনুষ্যবিহীন ড্রোন ব্যবহার করছে বলে জানায় মিডল ইস্ট আই।

মিডল ইস্ট আই এক প্রতিবেদনে জানায়, গতকাল সোমবার দেশটির প্রেসিডেন্ট ইলহান আলিয়েভ ‍তুর্ক সংবাদ মাধ্যম টিআরটি হাবের কে বলেন, অত্যাধুনিক ড্রোনের জন্য তুরস্ককে অসংখ্য ধন্যবাদ।

মনুষ্যবিহীন ড্রোনগুলোর কারণে আমাদের ক্ষয়ক্ষতি বেশ কম হয়েছে। এই ড্রোনগুলো তুরস্কের সক্ষমতার প্রমাণ দেয়ার পাশাপাশি আমাদেরও শক্তিশালী করেছে।

দুই সপ্তাহ ধরে চলমান যুদ্ধে উভয় পক্ষই সর্বশক্তি নিয়ে ঝাঁপিয়ে পড়েছে। তিন শতাধিক সামরিক ও বেসামরিক মানুষ নিহত হয়েছেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

ক্ল্যাশ রিপোর্ট নামে একটি টুইটার একাউন্টে বলা হয়, আর্মেনিয়ার বিরুদ্ধে আজারবাইজান তুরস্কের তৈরি বায়রাক্তার টিবি২ নামক ড্রোন ব্যবহার করছে বলে ধারণা করা হচ্ছে, ড্রোনগুলো তুরস্ক সিরিয়ার ইদলিব ও লিবিয়ায় রাশিয়ার বিরুদ্ধে ব্যবহার করেছিল।

আলিয়েভও তার বক্তব্যে বলেছেন, তিনি তার দেশের সেনাবাহিনীকে তুর্কি সেনাবাহিনীর আদলে গড়ে তোলতে ইচ্ছুক, যাতে আজারবাইজানও তুরস্কের মতো শক্তিশালী হতে পারে।

আরও পড়ুন… মুসলিমদের শান্তি রক্ষায় কাতারের আমিরকে যা বললেন এরদোগান

আঞ্চলিক সম্পর্ক উন্নয়নে কাতার আমির তামিম বিন হামাদ আল সানির সঙ্গে রাজধানী দোহায় বৈঠক করেছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রেসেপ তাইয়্যেপ এরদোগান।

বুধবার (৭ অক্টোবর) একদিনের রাষ্ট্রীয় সফরে দোহায় পৌঁছেন তুর্কি প্রেসিডেন্ট। এ সময় কাতারের প্রতিরক্ষা বিষয়ক মন্ত্রী খালিদ বিন মুহাম্মাদ আল আতিয়াহর নেতৃত্বে উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা তাকে স্বাগত জানান। খবর আল-জাজিরার।

গুরুত্বপূর্ণ এই সফরে প্রেসিডেন্ট এরদোগানের সঙ্গে ছিলেন অর্থ মন্ত্রী বেরাত আল বায়রাক, প্রতিরক্ষা মন্ত্রী হুলুসি আকার, যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক মন্ত্রী মেহমেত কাসাপগলু, জাতীয় গোয়েন্দা সংস্থা প্রধান হাকান ফিডান, যোগাযোগ বিভাগের মহাপরিচালক ফাহরেটিন আলতুন ও প্রেসিডেন্টের মুখপাত্র ইবরাহিম কালিনসহ অন্যান্য উচ্চপদস্থ অফিসিয়াল কর্মকর্তারা।

বৈঠকে প্রেসিডেন্ট এরদোগান কাতারের আমিরকে মুসলিম বিশ্বের শান্তি রক্ষায় কাজ করে যেতে আহ্বান জানিয়েছেন। এ সময় তারা দ্বিপাক্ষিক বিভিন্ন ইস্যুতে আলোচনা করেন।