শ্বশুরবাড়ি বেড়াতে গিয়ে কপাল খুললো ২ জামাইয়ের, পেলেন কোটি টাকা

শ্বশুরবাড়ি বেড়াতে গিয়ে ভাগ্য খুলে গেলো পশ্চিমবঙ্গের বীরভূমের দুই জামাইয়ের। মাত্র ১৫০ রুপির লটারি কেটে রাতারাতি কোটিপতি বনে গেছেন তারা।

জানা যায়, মুর্শিদাবাদের রঘুনাথগঞ্জের বাসিন্দা সৌমেন মণ্ডল। আর বীরভূমের পাইকর থানার কলহপুরের বাসিন্দা অরূপ কোনাই। দু’জনেরই শ্বশুরবাড়ি বীরভূমে।

সেখানে বেড়াতে গিয়ে গত বুধবার (২৯ জুন) ৭৫ রুপি করে দিয়ে দুই জামাই মিলে একটি লটারির টিকিট কেনেন। তবে প্রথম পুরস্কার জিতবেন এতটা ভাবেননি। কিন্তু কথায় আছে, কপালে থাকলে ঠেকায় কে!

ফল প্রকাশিত হলে জানা যায়, তারা দেড়শ রুপির সেই টিকিটে এক কোটি রুপি (১ কোটি ১৮ লাখ টাকা প্রায়) জিতেছেন। স্বাভাবিকভাবেই আনন্দে আত্মহারা সবাই। খুশির হাওয়া বইছে পরিবারে।

এদিকে, লটারিতে কোটি রুপি জিতেছেন বীরভূমের আরও একজন। ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের খবর অনুসারে, বীরভূমের দুবরাজপুর পৌরসভার বাসিন্দা প্রদীপ দে।

প্রতিদিন রানিগঞ্জ মোড়গ্রাম ৬০ নম্বর জাতীয় সড়কের কাছে একটি ঠেলাগাড়িতে চপ, ঘুগনি, মুড়ি বিক্রি করেন তিনি।

শ্বশুরবাড়ি বেড়াতে গিয়ে কপাল খুললো ২ জামাইয়ের, জিতলেন কোটি টাকা

গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় এক লটারি বিক্রেতা প্রদীপকে একটি টিকিট সাধেন। কিন্তু তিনি তা নেননি।

ঘটনাচক্রে সেই টিকিট বিক্রি হয়নি। পরে রাতে মাত্র ৩০ রুপি দিয়ে টিকিটটি কিনে নেন প্রদীপ। তার এক ঘণ্টা পরেই মেলে সুখবর। জানতে পারেন, লটারিতে এক কোটি রুপি জিতেছেন তিনি।

এত টাকা একসঙ্গে পেয়ে স্বভাবতই খুশির হাওয়া প্রদীপের সংসারে। তিনি বলেন, এই টাকায় বাড়ি বানাবো, ব্যবসাও বাড়াবো। ছেলে-মেয়েদের পড়াশোনার পেছনে খরচ করবো।

সূত্র: সংবাদ প্রতিদিন