১০ বছরের সাজার ভয়ে ৩২ বছর পাকিস্তানে পালিয়ে ছিলেন তিনি

ফেনীর সোনাগাজী উপজেলায় ধর্ষণ মামলার এক আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। সোমবার (১১ জুলাই) রাতে তাকে গ্রেপ্তার করে সোনাগাজী মডেল থানার উপপরিদর্শক জুয়েল রানা সরকার।

গ্রেপ্তার ওই ব্যক্তি ধর্ষণ মামলায় ১০ বছরের সাজাপ্রাপ্ত আসামি ছিলেন। সাজা এড়াতে তিনি দীর্ঘ ৩২ বছর পাকিস্তানের করাচিতে পালিয়ে ছিলেন। 

সাজাপ্রাপ্ত ওই ব্যক্তির নাম আইয়ুব আলি। তিনি সোনাগাজী উপজেলার চরদরবেশ ইউনিয়নের পশ্চিম দরবেশ গ্রামের আবুল কাশেমের ছেলে।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গৃহবধূকে ধ’র্ষ’ণে’র অভিযোগে ১৯৮৯ সালে আইয়ুব আলীর বিরুদ্ধে ফেনীর আদালতে মামলা করেন ধ’র্ষ’ণে’র শিকার ওই নারী।

পুলিশ তদন্ত করে তার বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। পরে তার অনুপস্থিতিতে ফেনীর জেলা ও দায়রা জজ আদালত তাকে ১০ বছরের কারাদণ্ড দেন। 

স্থানীয়রা জানান, ঘটনার সময় আইয়ুব আলী ২০/২২ বছরের তরুণ ছিলেন। ওই সময় পুলিশ তাকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা করলে তিনি ভারত হয়ে পাকিস্তানের করাচিতে পালিয়ে যান।

সেখানে দীর্ঘদিন থাকার পর গত বছর এলাকায় এসে ছদ্মবেশে লুকিয়ে থাকেন। 

সোনাগাজী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা খালেদ হোসেন দাইয়ান বলেন, আটকের পর তিনি পরিচয় গোপন করে বিভ্রান্তিকর তথ্য প্রদান করেন। পরে পুলিশের জেরার মুখে তিনি প্রকৃত পরিচয় প্রকাশ করতে বাধ্য হন।

পরে তাকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়। সাজা ভোগের জন্য মঙ্গলবার দুপুরে তাকে আদালতের মাধ্যমে ফেনী জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে।