পুলিশ-বিএনপি সংঘর্ষে নিহত আব্দুর রহিমের দাফন সম্পন্ন

ভোলায় পুলিশ ও বিএনপির নেতাকর্মীদের মধ্যে সং’ঘ’র্ষে নিহত স্বেচ্ছাসেবক দল নেতা আব্দুর রহিমের জানাজা সম্পন্ন হয়েছে।

সোমবার দুপুর ২টার দিকে শহরের গোরস্থান মাদ্রাসার মসজিদের সামনে তার জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। জানাজা শেষে তাকে দক্ষিণ দিঘলদী ইউনিয়নের পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করার কথা হয়।

এর আগে দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে তার ভাই আব্দুর রাজ্জাকসহ পরিবারের সদস্যদের কাছে ম’র’দে’হ হস্তান্তর করা হয়।

হস্তান্তরের সময় বরিশাল বিভাগীয় বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট বিলকিস জাহান শিরিন সদর হাসপাতালের ম’র্গে সামনে নিহতের স্বজনদের সমবেদনা জানিয়ে এ হ’ত্যা’র বিচার দাবি করেন। একইসাথে নিহত আব্দুর রহিমের স্বজনরাও হ’ত্যা’র বিচার দাবি করেন।

আব্দুর রহিমের জানাজা শেষে ভোলা জেলা বিএনপির সভাপতি আলহাজ্ব গোলাম নবী আলমগীর বলে, পুলিশ স্বেচ্ছাসেবক দল নেতা আব্দুর রহিমকে পি’টি’য়ে ও গু’লি করে হ’ত্যা করে।

এ ঘটনায় বিএনপির পক্ষ থেকে সদর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আরমন হোসেনকে অভিযুক্ত করে একটি মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

তিনি আরও দাবি করেন, পুলিশ নির্বিচারে তাদের নেতাকর্মীদের ওপর গু’লি চালিয়েছে।

এতে তাদের নেতাকর্মীরা আহত হয়েছে। কালকের ঘটনার পর থেকে পুলিশ পুরো জেলায় নেতাকর্মীদের বাড়িতে হানা দিচ্ছে। এতে নেতাকর্মীরা বাড়িতে থাকতে পারছে না।

জানাজায় জেলা বিএনপির সহসভাপতি আমিনুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক হারুন অর রশিদ ট্রুম্যান, যুগ্ম সম্পাদক হুমায়ুন কবির সোপান, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি খন্দকার আল আমিন, জেলা যুবদলের সভাপতি জামাল উদ্দিন লিটনসহ দলীয় নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।