দুই সন্তানসহ ‘মামার’ হাত ধরে উধাও গৃহবধূ

প্রায় ৮ বছরের সংসার। সেই সংসারে রয়েছে দুই সন্তান। দাম্পত্য জীবনেও ছিল না কোনো কলহ। তবুও জড়িয়ে পড়েন পরকীয়ায়। তাও আবার মামার সঙ্গে।

একপর্যায়ে সেই প্রেমিক মামার হাত ধরে দুই সন্তান ও স্বামীর টাকা-স্বর্ণালংকার নিয়ে উধাও হলেন গৃহবধূ। ঘটনাটি ভোলার লালমোহনের।  

এ ঘটনায় মঙ্গলবার লালমোহন থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন ওই গৃহবধূ রিমার স্বামী জুবায়ের হোসেন। এর আগে গত সোমবার রাতে উপজেলার লর্ডহার্ডিঞ্জ ইউনিয়নের ৬ নং ওয়ার্ডে এ ঘটনা ঘটে।

ওই প্রেমিক রিমার দূরসর্ম্পকের মামা হন। রিমা ধলীগৌরনগর ইউপির করিমগঞ্জ এলাকার মৃত জামাল উদ্দিনের মেয়ে। প্রেমিক তজুমদ্দিন উপজেলার গ্লোবপুর গ্রামের ইদ্রিসের ছেলে নূরহাফেজ।  

জানা যায়, প্রায় ৮ বছর আগে জুবায়ের হোসেনের সঙ্গে রিমা বেগমের বিয়ে হয়। তাদের সংসারে ৫ বছরের একটি মেয়ে ও দুই বছরের একটি ছেলে রয়েছে। বিয়ের পর ভালোভাবেই চলছিল তাদের দাম্পত্য জীবন।

তবে হঠাৎ রিমা পরকীয়া সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন  দূরসম্পর্কের মামা নূরহাফেজের সঙ্গে। রিমা নূরহাফেজকে শ্বশুর বাড়ির লোকজনের কাছে মামা হিসেবে পরিচয় দিতেন।

পরে তাদের সম্পর্কের বিষয়টি স্বামী ও পরিবারের লোকজন জানতে পারলে গত সোমবার রাতে সেই মামার সঙ্গে দুই সন্তান ও টাকা-স্বর্ণালংকার নিয়ে পালিয়ে যান রিমা।

রিমার স্বামী জুবায়ের হোসেন বলেন, রিমার সঙ্গে পারিবারিকভাবে বিয়ে হয়। ব্যবসার মাধ্যমে অর্থ উপার্জন করে স্ত্রী ও পরিবারকে সুখে রেখেছি। সেই সুখের সংসার রেখে পালিয়েছে রিমা।

সে আমাদের দুই সন্তানের কথাও চিন্তা করেনি। পালিয়ে যাওয়ার সময় ৪ ভরি স্বর্ণ ও ৭৫ হাজার টাকা নিয়ে গেছে। আমি তার বিচার ও দুই সন্তান ফিরে পেতে চাই।

লালমোহন থানার ওসি মো. মাকসুদুর রহমান মুরাদ জানান, ওই গৃহবধূর স্বামী থানায় লিখিতভাবে অভিযোগ করেছেন। ঘটনাটির তদন্ত চলমান। তদন্ত শেষে এ বিষয়ে বিস্তারিত জানা যাবে।