মৃত ছেলেকে জীবিত করতে ১০০ কেজি লবণের নিচে রেখে দিলো পরিবার

মৃত ছেলেকে জীবিত করতে তার পরিবার ও গ্রামবাসী তাকে লবণের স্তূপের নিচে রেখে দেয়।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে একটি বার্তা দেখে ছেলেকে বাঁচিয়ে তোলার এমন চেষ্টা করে তারা।

ভারতীয় গণমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়ার এক প্রতিবেদনে বলা হয়, সম্প্রতি কর্ণাটকের বাল্লারি তালুকের সিরাভার গ্রামে এই ঘটনাটি ঘটেছে। তবে সোমবার (৫ সেপ্টেম্বর) ঘটনাটি প্রকাশ্যে আসে।

সুরেশ সিরাভার নামে ১০ বছরের ওই ছেলে সম্প্রতি একটি পুকুরে ডুবে মারা যায়।

তার বাবা শেখর ও মা গঙ্গামা এবং গ্রামবাসীরা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে দেখেন, মৃত ব্যক্তিকে লবণের স্তূপের নিচে রেখে দিলে প্রাণ ফিরে আসবে।

এরপর তারা সুরেশের দেহকে দুই ঘণ্টা লবণের স্তূপের নিচে রাখার সিদ্ধান্ত নেয়। কিন্তু শেষ পর্যন্ত লাশটি চার ঘণ্টা লবণের স্তূপের নিচে রাখা হয়। তবে তাতে কোনো কিছুই হয়নি, তারপর সুরেশের দেহ দাহ করে তারা।

এই ঘটনার পর লবণের নিচে রাখা লাশের ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়ে যায়।

দু’জন গ্রামবাসী বলেন, আমরা সুরেশের শরীর ১০০ কেজির বেশি লবণ দিয়ে ঢেকে দেই। এভাবে আমরা চার ঘণ্টারও বেশি সময় ধরে রেখে দিয়েছিলাম। শুধু তার মুখটা খোলা ছিল। আমরা তাকে আবার জীবিত করতে পারিনি। তাই পরে আমরা তার দেহ দাহ করেছি।