তিমির ধাক্কায় নৌকা উল্টে পাঁচজনের মৃত্যু

তিমির ধাক্কায় নৌকা উল্টে পাঁচজনের মৃত্যু হয়েছে। শনিবার নিউজিল্যান্ডে কাইকোরা শহরের কাছে গুজ উপসাগরে এই ঘটনা ঘটেছে। এগারো জনের একটি দল নৌকাতে করে পাখি দেখছিলেন বলে জানা গেছে। 

কাইকোরা শহরের মেয়র ক্রেগ ম্যাকল ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করলেও পুলিশ দুর্ঘটনার কারণ সম্পর্কে কিছু জানায়নি।

ম্যাকল জানিয়েছেন, দুর্ঘটনার সময় সাগরের পরিস্থিতি স্বাভাবিক ছিল। তাই কর্মকর্তাদের ধারণা তিমিটি নৌকার নিচে আসলে নৌকাটি উল্টে যায়।

তার দাবি, যদি তিমিটি নৌকাতে আঘাত করত তাহলে নৌকার ধ্বংসাবশেষ পাওয়া যেত কিংবা নৌকায় বড় ধরনের কোনো গর্ত দেখা যেত, কিন্তু সেরকমটি হয়নি।

সার্জেন্ট ম্যাট বয়েস এই ব্যাখ্যার বিষয়ে মন্তব্য করতে অস্বীকৃতি জানান, তবে তিনি স্বীকার করেছেন ঘটনাটি ‘অভূতপূর্ব’।

ম্যাট বলেছেন, নৌকার ক্যাপ্টেনসহ এই ঘটনায় বেঁচে যাওয়া সবাইকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে এবং পরে তাদের ছেড়ে দেওয়া হয়। একজন জীবিত ব্যক্তি সামান্য আহত হয়েছেন।

মনে করা হচ্ছে, নৌকার যাত্রীরা সারা দেশ থেকে এখানে পাখি দেখতে এসেছিলেন।উদ্ধার কাজে অংশ নেওয়া ভেনেসা চ্যাপম্যান স্থানীয় গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, তিনটি হেলিকপ্টার উদ্ধার কাজে অংশ নিয়েছিল।

তিনি যখন ঘটনাস্থলে পৌঁছান তখন উল্টে যাওয়া নৌকার ওপর একজনকে বসে থাকতে দেখেন।  তিনি তাদের একটি অস্ত্র নাড়ছিলেন।  

সামুদ্রিক জীবন উপভোগ করতে চাওয়া মানুষের কাছে কাইকোরা খুব পরিচিত একটি যায়গা। এখানে অনেক স্থানীয় ব্যবসায়ী নৌকা ভ্রমণ এবং হেলিকপ্টারে চড়ার মাধ্যমে তিমি এবং ডলফিন দেখার ব্যবস্থা করে থাকে।

ম্যাকল অ্যাসোসিয়েটেড প্রেসকে বলেছেন, অঞ্চলটিতে এই জাতীয় দুর্ঘটনার কথা এর আগে শোনা যায়নি। তবে সাম্প্রতিক দিনগুলোতে এই অঞ্চলের তিমির সংখ্যা তাকে সংঘর্ষের বিষয়ে উদ্বিগ্ন করে তুলেছে।

এর আগে ২০১৫ সালে কানাডায় তিমি দেখতে যেয়ে একটি নৌকা ঢেউয়ের কবলে পড়ে এবং নৌকাডুবিতে পাঁচজন ব্রিটিশ পর্যটক মারা যান।