হিজাব না পরার দায়ে গ্রেপ্তার হওয়া ইরানি তরুণীর মৃত্যু

হিজাব না পরার দায়ে গ্রেপ্তার হওয়া ২২ বছর বয়সী ইরানি তরুণী মাহসা আমিনি আজ শুক্রবার কোমায় মারা গেছেন।

মঙ্গলবার ইরানের নৈতিকতা বিষয়ক পুলিশ কর্তৃক গ্রেপ্তার এবং মারধর করার পরপরই তিনি কোমায় চলে যান। রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন বিস্তারিত না জানিয়ে স্ক্রলের লেখায় তার মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

আমিনি সপ্তাহের শুরুতে ইরানের কুর্দিস্তান প্রদেশ থেকে রাজধানী তেহরানে আত্মীয়দের সাথে দেখা করতে গিয়েছিলেন।

বিজ্ঞাপনতখন সম্পূর্ণরূপে চুল ঢেকে না রাখার জন্য ইরানের নৈতিকতা পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, মঙ্গলবার তেহরানে মাহসা আমিনিকে তুলে নেওয়ার সময় পুলিশ ভ্যানের ভেতরে তাকে মারধর করা হয়।

পুলিশ এই অভিযোগ অস্বীকার করে বলেছে, আমিনী ‘হৃদরোগের সমস্যায় ভুগছিলেন’।

অন্যদিকে আমিনির পরিবারের দাবি, তিনি একজন সুস্থ তরুণী ছিলেন। এবং তার হৃদরোগের কোনো লক্ষণ ছিল না কিংবা তিনি চিকিৎসাধীনও ছিলেন না।

আমিনিকে গ্রেপ্তারের কয়েক ঘণ্টা পর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল বলে তার পরিবারকে জানানো হয়েছিল। এবং আমিনি শুক্রবার মৃত্যুর আগে কোমায় ছিলেন বলে জানিয়েছে তার পরিবার।

তেহরান পুলিশ বলেছে, আমিনিকে হিজাব সম্পর্কে ‘ন্যায্যতা ও শিক্ষার’ জন্য গ্রেপ্তার করা হয়েছে এবং সকল নারীদের জন্য হিজাব পরা বাধ্যতামূলক।

আমিনির ঘটনা ইরানের ভেতর এবং বাইরে থেকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ক্ষোভের জন্ম দিয়েছে। হাসপাতালের বিছানায় শুয়ে থাকা আমিনির ছবি পোস্ট করে এক টুইটার ব্যবহারকারী লিখেছেন, ‘মাহসা আমিনির কান দিয়ে রক্ত ​​পড়ছে।

খুব সম্ভবত প্রচণ্ড মারধরের কারণে তার মাথার খুলি ভেঙে গেছে এবং তার কান দিয়ে রক্তক্ষরণ হয়েছে। হার্ট অ্যাটাকের গল্প মিথ্যা। আমরা একটি ভয়ানক অপরাধ মোকাবেলা করছি। ‘

সরকার সমর্থক ব্যক্তিসহ অনেক ইরানি গাইডেন্স প্যাট্রোল নামে পরিচিত নৈতিকতা পুলিশের অস্তিত্ব সম্পর্কে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তাদের ক্ষোভ প্রকাশ করছে।

পাশাপাশি অনেক ইরানি দেশটির সর্বোচ্চ নেতা আলী খামেনিকে সরাসরি দোষারোপ করেছে। তার একটি পুরানো বক্তৃতা নতুন করে সামনে এসেছে।

যেখানে তিনি নৈতিকতা পুলিশের ভূমিকাকে ন্যায্যতা দিয়েছেন এবং জোর দিয়ে বলেছেন যে ইসলামি শাসনের অধীনে মহিলাদের অবশ্যই ইসলামী পোশাকবিধি পালন করতে বাধ্য করা উচিত।

এদিকে শুক্রবার সংস্কারবাদী রাজনীতিবিদ এবং প্রাক্তন আইন প্রণেতা মাহমুদ সাদেঘি আমিনির মামলার বিষয়ে কথা বলার জন্য খামেনিকে আহ্বান জানিয়েছেন।

রাষ্ট্রপতি ইব্রাহিম রাইসির বলার পর স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এবং তেহরানের বিচারক মাহসা আমিনির মামলার তদন্ত শুরু করেছে।

১৯৭৯ সালে বিপ্লবের পর ইসলামী প্রজাতন্ত্র হিসেবে আত্মপ্রকাশ করে ইরান। এর পরপরই দেশটি নারীদের জন্য হিজাব পরা বাধ্যতামূলক করে। পোষাক নীতি অনুযায়ী নারীদের জনসমক্ষে তাদের চুল সম্পূর্ণভাবে ঢেকে রাখতে হবে এবং লম্বা, ঢিলেঢালা পোশাক পরতে হবে।

সূত্র : বিবিস, রয়টার্স, আল অ্যারাবিয়া।