অলৌকিকভাবে বেঁচে গেল আড়াই বছরের শিশু! 

আধা ঘণ্টা করতোয়া নদীতে ভেসে যাওয়ার পর উদ্ধার হওয়া আড়াই বছরের শিশু সন্তান দিপু চিকিৎসার পর এখন সুস্থ।

এদিকে নৌকা ডুবির দুই দিন পর মাকে মৃত অবস্থায় উদ্ধার করা হলেও বাবা এখনো নিখোঁজ। 

সনাতধর্মীদের তীর্থস্থান বদেশ্বরী মন্দিরে মহালয়া উপলক্ষে বড় দুই সন্তানকে রেখে মহালয়ায় যোগ দিতে গিয়ে বাবা ভূপেন মা রুপালী ও ছোট সন্তান দিপুকে নিয়ে অন্যদের সঙ্গে মাড়েয়া আওলিয়া ঘাট দিয়ে নৌকায় করে পাড় হচ্ছিলেন করতোয়া নদী।

কিন্তু মহালয়া পূজাই জীবনের শেষ পূজা হয়ে দারালো রুপালী ও ভূপেনের দম্পত্তির দুই জীবন। তবে এখন বাবার সন্ধানের অপেক্ষায় স্বজনরা।

রোববার দুপুরে পঞ্চগড়ের বোদা উপজেলার মাড়েয়া বামনহাট ইউপির আউলিয়া ঘাটে করতোয়া নদী নৌকা দিয়ে পার হতে গিয়ে নৌকা ডুবে ওই দম্পত্তির মৃত্যু হয়।

তবে এ সময় তাদের সঙ্গে থাকা শিশু দিপু স্থানীয়দের সহায়তায় জীবিত উদ্ধার করে উন্নত চিকিৎসার জন্য রংপুর মেডিকেলে নেয়া হয়।

ঘটনার পরের দিন রাতে রুপালীর মরদেহ তার নিজ বাড়ী জেলার দেবীগঞ্জ উপজেলার শালডাংগা ইউনিয়নের ছত্রা শিকারপুর  গ্রামে নেয়া হয়। এর পর শিশু সন্তানটি কিছুটা সুস্থ হলে তাকেও বাড়িতে আনা হয়। 

রুপালীকে  দিনাজপুর জেলার বীরগঞ্জ উপজেলায়  উদ্ধার করা হলেও এখনো নিখোঁজ বাবা ভুপেন।

মরদেহ বাড়িতে নেয়ার খবরে নিহতের বাড়িতে গেলে কান্না ও আহাজারী পরিবেশ বিরাজ করতে দেখা যায়। এ ঘটনায় পুরো এলাকায় নেমে এসেছে শোকের ছায়া। তবে বাবা মাকে হারিয়ে তিন সন্তান পুরো এতিম হয়ে গেলো। এই মুহূর্তে তাদের কোনো উপার্জনকারী নেই। 

মোট ৬৮ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হলেও এখনো নিখোঁজ আরো ৪ জন নিখোঁজ রয়েছেন।