অবশেষে শাকিব-বুবলীর বিচ্ছেদ, ঘোষণা হতে পারে আজ !

ঢালিউড চিত্রনায়ক শাকিব খান ও চিত্রনায়িকা শবনম ইয়াসমিন বুবলীকে নিয়ে বিচ্ছেদের গুঞ্জনই সত্যি হলো। শাকিব খান ও বুবলীর ঘনিষ্ঠ একাধিক সূত্র জানিয়েছে, আট মাস আগেই তাদের বিচ্ছেদ হয়ে গেছে।

তাদের ঘনিষ্ঠ সূত্রের বরাতে জানা গেছে, শাকিব খান-বুবলির বিয়ের তারিখ ছিল ২০১৮ সালের ২০ জুলাই।

আর ২০২০ সালের ২১ মার্চ সন্তান শেহজাদের জন্ম হয়েছে। এটি বুবলি তার ফেসবুক পোস্টের মাধ্যমে জানিয়েছেন। ২০২১ সাল থেকেই শাকিব খান ও বুবলির মধ্যে বিবাদ শুরু।

সে বছর ১৮ ফেব্রুয়ারি ‘লিডার, আমিই বাংলাদেশ’ সিনেমার সাইনিং অনুষ্ঠানে দুজন মুখোমুখি হলেও কেউ কারও সঙ্গে কথা পর্যন্ত বলেননি। তারপরেও সিনেমার শুটিং করেছেন। 

শাকিব খান যুক্তরাষ্ট্রে থাকা অবস্থায় বুবলি ২০২১ সালের ডিসেম্বরে যুক্তরাষ্ট্রে গেলে দুজনের মধ্যে সম্পর্কের বরফ গলতে শুরু করে।

কিন্তু বুবলি বাংলাদেশে ফিরে আসার পর তাদের মধ্যে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে দূরত্ব বাড়তেই থাকে। এই দূরত্ব-বিবাদের কারণেই তাদের বিচ্ছেদ হয়েছে বলে সূত্রগুলো জানায়।

তবে একটি গণমাধ্যমকে বিচ্ছেদের বিষয়টি অস্বীকার করে বুবলীর বলেন, বিবাহ বিচ্ছেদের কথা কেউ একজন ছড়াচ্ছেন। তিনি বলেন, এ ধরনের কথা কে বা কারা ছড়াচ্ছে আমি বুঝতে পারছি না। তবে শিগগিরই জানতে পারব।

শাকিব-বুবলীকে নিয়ে অনেক আগে থেকেই চলছিল প্রেমের গুঞ্জন। বুবলীর আমেরিকায় পাড়ি দেয়ার পর গুঞ্জন আরও ডালপালা ছড়াতে থাকে। সম্প্রতি সন্তানকে প্রকাশ্যে এনে এসব গুঞ্জন সত্যিই করে দিয়েছেন এ নায়িকা।

দুইজনেই জানিয়েছেন, সন্তানের বাবা-মা তারা। তবে সবকিছুর পরও নেটিজেনদের প্রশ্ন-  শাকিব বুবলি কি আদৌ একসঙ্গে থাকছেন? নাকি অপু বিশ্বাসের পথেই হাঁটবেন…।

সবশেষ পহেলা অক্টোবর ঢাকার একটি পাঁচ তারকা হোটেলে ‘লিডার-আমিই বাংলাদেশ’ সিনেমার গানের শুটিং স্পটে শাকিব খান ও বুবলিকে একসঙ্গে দেখা যায়। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বুবলীর দেওয়া তথ্যমতে, শাকিব খানের সঙ্গে তার বিয়ে হয়েছে ২০১৮ সালের ২০ জুলাই। 

এর আগে, শাকিবের খান ও অপু বিশ্বাসের বিচ্ছেদ হয় ২০১৮ সালের ২২ ফেব্রুয়ারি। তাদের ১০ বছরের সংসারে আব্রাম খান জয় নামে এক ছেলে আছে।