ধানখেতে মিলল অন্তঃসত্ত্বা তরুণীর বিবস্ত্র মরদেহ, পোশাক গাছে

রাজশাহীর গোদাগাড়ীতে ধানখেতে পাওয়া গেছে সাহেরা খাতুন (২০) নামের এক অন্তঃসত্ত্বা তরুণীর বি’ব’স্ত্র ম’র’দে’হ।

শনিবার (১৫ অক্টোবর) দুপুরের দিকে উপজেলার গড়গড়িয়া এলাকা থেকে অ’র্ধ’গ’লি’ত ম’র’দে’হ’টি উদ্ধার করেছে পুলিশে। ঘটনাস্থলের পাশেই গাছের ডালে বাঁধা ছিল ওই তরুণীর পোশাক।  

নি’হ’ত সাহেরা খাতুন গোদাগাড়ীর চাতরা গ্রামের দানেস আলীর মেয়ে। তার স্বামীর বাড়ি পার্শ্ববর্তী তানোর উপজেলার সরনজাই মির্জাপুরে।

পুলিশ বলছে, হ’ত্যা’কাণ্ডের শি’কা’র হয়েছেন তিনি। মে’র’দে’হে পচন ধরায় হ’ত্যা’র আগে তিনি ধ’র্ষ’ণে’র শিকার  হয়েছেন কীনা নিশ্চিত  হওয়া যায়নি।

ম’র’দে’হ ম’য়’না’তদন্তের জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ ম’র্গে পাঠিয়েছে গোদাগাড়ী মডেল থানা পুলিশ।

থানা পুলিশের ওসি কামরুল ইসলাম জানান, দুর্গন্ধের উৎস খুঁজতে গিয়ে স্থানীয়রা ধানখেতে অ’র্ধ’গ’লি’ত ম’র’দে’হ দেখতে পান। খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে ওই ম’র’দে’হ উদ্ধার করে।

দুই-তিন দিন আগে হ’ত্যা’কা’ণ্ডে’র শিকার হয়েছেন ওই তরুণী। ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পেলে হ’ত্যা’কা’ণ্ডে’র কারণ জানা যাবে। এ ব্যাপারে আইনত ব্যবস্থা নিচ্ছে পুলিশ।

ওসি আরও বলেন, নিহত তরুণী ৫ মাসের অন্তঃসত্ত্বা ছিলেন। তিনি মানসিক সমস্যায় ভুগছিলেন। এজন্য তাকে বাবার বাড়িতে রেখে  স্বামী ঢাকায় নির্মাণ শ্রমিকের কাজে যান।

বাবার বাড়ি থেকে গত বুধবার নিখোঁজ হয়েছিলেন সাহেরা। তবে এ নিয়ে থানায় কোনো সাধারণ ডায়েরি হয়নি। খোঁজাখুঁজির মধ্যেই শনিবার দুপুরে বাড়ি থেকে প্রায় তিন কিলোমিটার দূরে ধানখেতে তার ম’র’দে’হ মিলল।