কুয়েতে আন্তর্জাতিক কোরআন প্রতিযোগিতায় তৃতীয় বাংলাদেশের আবু রাহাত

কুয়েতে ১১তম আন্তর্জাতিক কোরআন প্রতিযোগিতায় অনূর্ধ্ব-১৩ বছরের গ্রুপে তৃতীয় হয়েছে বাংলাদেশি হাফেজ আবু রাহাত। 

দেশটির আমির নওয়াফ আল-আহমেদ আল-জাবের আল-সাবাহর পৃষ্ঠপোষকতায় এ প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়।

স্থানীয় সময় বুধবার সকালে হোটেল রেজিন্সির হলরুমে আয়োজিত অনুষ্ঠানে ৩ ক্যাটাগরিতে চূড়ান্ত বিজয়ীদের নাম ঘোষণা ও পুরষ্কার তুলে দেওয়া হয়। 

অনূর্ধ্ব-১৩ গ্রুপে ‘তরুণদের জন্য পবিত্র কোরআন সম্পূর্ণরূপে মুখস্থ’ শাখায় তৃতীয় হওয়ায় আবু রাহাত পুরস্কার ও সম্মান অর্জন করেন।

তার হাতে পুরস্কার তুলে দেওয়ার সময় উপস্থিত ছিলেন কুয়েতের শিক্ষা ও ইসলামবিষয়ক মন্ত্রী আবদুল আজিজ মাজিদ, বিচারকের দায়িত্বে থাকা মিশরের ড. ফুয়াদ আবদুল মাজিদ, শায়েখ ড. জিবরিল, শায়েখ জায়েদ ।

গত ১৩ অক্টোবর থেকে শুরু হওয়া আন্তর্জাতিক এ প্রতিযোগিতার সার্বিক তত্ত্বাবধানে ছিল কুয়েতের ধর্ম মন্ত্রণালয়।

এ প্রতিযোগিতায় কুয়েত, সৌদি আরব, মিশর, লিবিয়া ও ইয়েমেনের বিশেষজ্ঞরা বিচারকের দায়িত্ব পালন করেন।

বাংলাদেশের হয়ে এই গৌরবময় সাফল্য অর্জনের জন্য কুয়েতে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মেজর জেনারেল মো. আশিকুজ্জামান দূতাবাসের পক্ষ থেকে বিজয়ী হাফেজ আবু রাহাতকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন।

ধর্ম মন্ত্রণালয়ের অধীনে ইসলামিক ফাউন্ডেশন আয়োজিত প্রতিযোগিতার মাধ্যমে বাংলাদেশের প্রতিনিধি নির্বাচিত হন রাহাত। 

আবু রাহাতের গ্রামের বাড়ি সিরাজগঞ্জের শাহাজাদপুর উপজেলার পইজুরি ইউনিয়নের পূর্বচর পইজুরি গ্রামে। সে রাজধানীর মারকাজুত তাহফিজ ইন্টারন্যাশনাল মাদ্রাসার ছাত্র। 

এর আগে ‘জাতীয় হিফজুল কোরআন প্রতিযোগিতা ২০২০ পিএইচপি কোরআনের আলোয়’  প্রথম স্থান অধিকার করেন হাফেজ আবু রাহাত।